চট্টগ্রামের লিটার অফ লাইটের অনুষ্ঠান নিউ ইয়র্কে

প্রবাসীর দিগন্ত | প্রবাসীরদিগন্ত ডেস্ক : এপ্রিল ৫, ২০১৮

যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে বাংলাদেশের সামাজিক প্রতিষ্ঠান লিটার অফ লাইট বাংলাদেশের পরিচিতি অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। লিটার অফ লাইট বাংলাদেশ ফিলিপিনের আন্তর্জাতিক কমিউনিটি প্রতিষ্ঠান লিটার অফ লাইটের বাংলাদেশি চাপ্টার। লিটার অফ লাইট বাংলাদেশের কার্যক্রম পরিচালনা করছে লাইটস ফাউন্ডেশন।

প্রতিষ্ঠানের যুক্তরাষ্ট্রের বিভাগীয় ব্যবস্থাপক জাহিদ তানভীর বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশে ৪৪.৮০% মানুষ বিদ্যুৎ পায়না। এ সমস্যার সমাধান হবে যদি বিদ্যুৎবঞ্চিত মানুষগুলোকে শেখানো যায় কিভাবে তারা নিজেরাই সহজে লাইট তৈরি করতে পারে। লিটার অফ লাইট মূলত একটা সহজে তৈরিযোগ্য লাইটের আইডিয়াকে প্রচার করে। স্কুল, কলেজ, ভার্সিটির স্বেচ্ছাসেবকরা অনুদানের অর্থ দিয়ে নিজেরা সোলার প্যানেল, ব্যাটারি, পিভিসি পাইপ এবং বোতল দিয়ে স্ট্রিট টলাইট এবং ল্যাম্প তৈরি করে। তারপর বিদ্যুৎবঞ্চিত গ্রাম, পার্বত্য অঞ্চল, উপকূলীয় অঞ্চল অথবা বস্তিতে গিয়ে লাইটগুলো স্থাপন আর বিতরণ করা হয়। শেষে এলাকার মানুষদেরকে শেখানো হয় কিভাবে লাইট গুলো নিজেরাই সহজে তৈরি করতে পারবে, যাতে নিজেদের সমস্যার সমাধান নিজেরাই করতে পারে।

লিটার অফ লাইট বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা নির্বাহী পরিচালক সানজিদুল আলম সিবান শান স্কাইপের মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে যুক্ত হয়ে বলেন, আমরা দান করেই দায়বদ্ধতা এড়িয়ে চলি, তা না করে যদি সুবিধাবঞ্চিতদের সাবলম্বী করে দিতে পারি, তাদের সমস্যা সমাধানের পথ তাদের দেখিয়ে দিতে পারি, তবে সমাধান খুব সহজেই সম্ভব। এনজিওগুলো বিদ্যুৎবঞ্চিতদের সাহায্যার্থে তৃণমূল পর্যায়ে সোলার সিস্ট্যাম দিলেও অনেক ব্যয়বহুল হওয়াতে দরিদ্র মানুষেরা ব্যবহার করতে পারেনা। আমরা যদি খুব অল্প মূল্যে তৈরি করা যায় এমন সোলার লাইট বানানো শিখিয়ে দিতে পারি তাদের, তারা নিজেদের ঘর নিজেরাই আলোকিত করতে পারবে। আর সঙ্গে শিক্ষার্থীদের আমরা কাজে লাগাতে পারব সামাজিক একটা সমস্যা সমাধানে। উদ্ভাবনের এই যুগে সমস্যা সমাধানে হাজার কোটি টাকার প্রকল্প লাগেনা, উদ্ভাবনী আইডিয়ার প্রয়োগিক ব্যবহারের মাধ্যমে সমস্যার সমাধান সম্ভব।

অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত বাংগালি এবং যুক্তরাষ্ট্রের অনেকেই উপস্থিত ছিলেন। বক্তারা আহ্বান জানান এই প্রকল্পে বিনামূল্যে লাইট প্রদানের লক্ষ্যে আর্থিক সহযোগিতার জন্য।

উল্লেখ্য, লিটার অফ লাইট সারা বিশ্বে ২০টিরও বেশি দেশে কাজ করছে এক’শ এর বেশি বিভিন্ন স্থানীয় প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত হয়ে। উদ্ভাবনী এই আইডিয়া ছড়িয়ে দিতে স্বেচ্ছাসেবীরা কাজ করছে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমও ব্যবহার করা হচ্ছে। লিটার অফ লাইট বাংলাদেশের স্বেচ্ছাসেবী প্রকৌশলী টিম ইতিমধ্যে সহজলভ্য কাঁচামাল দিয়ে তৈরিযোগ্য ৫ ধরণের বাতি তৈরি করেছে, যা যে কেউ একবার দেখিয়ে দিলে নিজেরাই তৈরি করতে পারবে। প্রকল্পের ট্রেইনিং, বাতি তৈরি, গবেষণাসহ সার্বিক পরিচালনার জন্য তারা অনুদান নিয়ে থাকেন।

লিটার অফ লাইট সম্পর্কে বিস্তারিত পাওয়া যাবে www.facebook.com/literoflightbd

 

প্রবাসী বাংলাদেশীরা লিখতে পারেন.... [email protected] এ ঠিকানায়।

প্রতিদিন আপডেট পেতে আমাদের পেজে লাইক, কমেন্ট এবং শেয়ার করে এক্টিভ থাকুন। যে যেখানে আছেন নিরাপদে থাকুন, আনন্দময় হোক আপনার সারাদিন।

তথ্য:

বিভাগ:

প্রকাশ: এপ্রিল ৫, ২০১৮

প্রতিবেদক: প্রবাসীর দিগন্ত

সর্বমোট পড়েছেন: 295 জন

মন্তব্য: 0 টি