মালয়েশিয়া দূতাবাসে ‘ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালন

আহমাদুল কবির | বিশেষ প্রতিবেদক : এপ্রিল ১৭, ২০১৮

মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালন করা হয়েছে। মালয়েশিয়া সময় বিকেল সাড়ে ৩ টায় দূতাবাসের সম্মেলন কক্ষে মুজিব নগর দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়। হাই কমিশনার মহ: শহীদুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও শ্রম কাউন্সেলর মো: সায়েদুল ইসলামের পরিচালনায়  কুরআন তিলাওয়াতের মধ্য দিয়ে শুরু হওয়া আলোচনা সভায় রাষ্ট্রপতির বাণী পাঠ করেন দূতালয় প্রধান ওয়াহিদা আহমেদ। প্রধান মন্ত্রী বাণী পাঠ করেন মিনিষ্টার পলিটিক্যাল মো: রাইছ হাসান সারোয়ার। মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন কমার্শিয়াল উইং মো: রাজিবুল আহসান।
আলোচনা সভায় মহ: শহীদুল ইসলাম তার বক্তব্যে বলেন, ‘ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস ও ৭ মার্চের ভাষণ স্বাধীনতার সত্যিকারের ঘোষণা, যা বাঙালি জাতীয়তাবাদের সংগ্রামের ঘোষণা হিসেবে সর্বাত্মক স্বীকৃত। ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস। বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের সুদীর্ঘ ইতিহাসের এক চিরভাস্বর অবিস্মরণীয় দিন। ১৯৭১ সালের এই দিনে কুষ্টিয়া জেলার তদানীন্তন মেহেরপুর মহকুমার বৈদ্যনাথতলার আম্রকাননে স্বাধীন-সার্বভৌম গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের প্রথম সরকার আনুষ্ঠানিকভাবে শপথ গ্রহণ করে। এ অনুষ্ঠানে ষোষিত হয় ১৯৭১ সালের ১০ এপ্রিলে গঠিত গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র। ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনের পর তৎকালীন পাকিস্তানের শাসকচক্র নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে অস্বীকৃতি জানায় এবং বেআইনিভাবে জাতীয় পরিষদের অধিবেশন অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে। পরবর্তীতে ১৯৭১-এর ২৫ শে মার্চ কালরাতে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী নিরস্ত্র বাঙালির ওপর ন্যায়-নীতিবহির্ভূত এবং বিশ্বাস ঘাতকতামূলক যুদ্ধ শুরু করলে ২৬ মার্চ প্রথম প্রহরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ওয়ারলেসের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষণা করেন।
হাই কমিশনার বলেন, জাতির জনকের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। বিশ্বের দরবারে আজ আমরা উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছি। তার মধ্যে সবচেয়ে বড় অবদান হচ্ছে আমাদেও প্রবাসীদের। বিদেশে তারা মাথার ঘাম পায়ে ফেলে রেমিটেন্স পাঠিয়ে দেশের অর্থনৈতিক চাকাকে সচল রেখেছেন বৃদ্ধিকরেছেন রিজার্ভ ফান্ড। নতুন প্রজন্মের বাংলাদেশ হবে সুখী ও সমৃদ্ধির। নতুন স্বদেশ গড়ার পথে নতুন প্রজন্মের মূল শক্তি থাকবে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা।


হাই কমিশনার আরোও বলেন, বর্তমানে মালয়েশিয়ায় চলছে সংসদ নির্বাচনের প্রচার প্রচারণা। আগামী ৯ মে অনুষ্টিত হবে তাদের জতীয় নির্বাচন । এ সময় কালে দেশটিতে বসবাসরত বাংলাদেশীদের সতর্ক করে দিয়েছেন যাতে করে তাদের আভ্যন্তরীন বিষয় নিয়ে কথা না বলা।


আলোচনা সভায়  অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন,দূতাবাসের শ্রম শাখার প্রথম সচিব মো: হেদায়েতুল ইসলাম মন্ডল,  পাসপোর্ট ও ভিসা শাখার প্রথম সচিব  মো: মশিউর রহমান তালুকদার, ফার্ষ্ট সেক্রেটারি তাহমিনা ইয়াসমীন, শ্রম শাখার ২ য় সচিব মো: ফরিদ আহমদ সহ দূতাবাসের সক কর্মকর্তা ও কর্মচারি বৃন্দ। অনুষ্টানে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান ও সকল বীর শহীদ দের আত্মার মাগফেরাত জাতির জনকের কন্যা প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ূ কামনা করে মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো: সোহরাব হোসেন ভূইয়া।

তথ্য:

বিভাগ:

প্রকাশ: এপ্রিল ১৭, ২০১৮

সর্বমোট পড়েছেন: 540 জন

মন্তব্য: 0 টি

সংশ্লিষ্ট সংবাদ