রাজধানীতে মুক্তিপণ না পেয়ে স্কুলছাত্র খুন, গ্রেপ্তার ২

প্রবাসীর দিগন্ত | নিজস্ব প্রতিবেদক : জানুয়ারী ২৫, ২০১৮

খিলগাঁওয়ের গোড়ান এলাকার স্কুলছাত্র জিসানকে (১৪) অপহরণের পর তার বাবার কাছে ১৪ লাখ টাকা মুক্তিপণ চেয়েছিল দুর্বৃত্তরা। টাকা না পেয়ে শিশুটিকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়। এরপর লাশের সঙ্গে ইট বেঁধে ফেলা হয় আফতাবনগরের লেকে।

আজ বুধবার এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৩।

তারা হচ্ছেন, গাইবান্ধার ফুলছড়ির মো. শাহীন (১৯)। তার বাবার নাম আবদুল জলিল এবং দিনাজপুরের শরিফুল ইসলাম (২২)। তার বাবার নাম শফিকুল ইসলাম।

র‌্যাব-৩ এর সিইও লে. কর্নেল এমরানুল হাসান এসব তথ্য জানিয়েছেন।

সিপাহীবাগ থেকে শাহীনকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-৩। পরে তার দেওয়া তথ্যানুসারে শরিফুলকে গ্রেপ্তার করা হয়।

হত্যার কারণ হিসেবে গ্রেপ্তারকৃতরা বলেছে, মুক্তিপণ না পাওয়ায় তারা জিসানকে হত্যা করেছে।

প্রসঙ্গত, সোমবার বেলা ২টায় লেকে ভাসমান অবস্থায় লাশ উদ্ধার করে বাড্ডা থানার পুলিশ। পরে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়। ওই সময় কিশোরের পরিচয় না জানায় পুলিশ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পরিচয় জানতে চায়।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কিশোর জিসানের বাবা মোফাজ্জল হোসেন ঢামেক মর্গে এসে লাশ শনাক্ত করেন। জিসান ইন্টারন্যাশনাল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের ৭ম শ্রেণির ছাত্র ছিল।

মোফাজ্জেল হোসেন রিকশার ব্যবসা করেন। তিনি পরিবার নিয়ে ২৫২/৩ সিপাহীবাগ খিলগাঁওয়ে ভাড়া বাসায় থাকেন।

তিনি জানান, গত শুক্রবার সিপাহীবাগ নতুন রাস্তায় রিকশার গ্যারেজের সামনে থেকে জিসান নিখোঁজ হয়। পরদিন ভোরে ফোনে ছেলের মুক্তিপণ বাবদ ১৫ লাখ টাকা দাবি করা হয়। পরে তিনি খিলগাঁও থানায় জিডি করেন। তিনি অপহরণকারীদের চেনেন বলেও সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।

ঢামেক মর্গ সূত্র জানিয়েছে, জিসানের গায়ে কোনো আঘাতের চিহ্ন ছিল না। তবে নাক দিয়ে রক্ত ঝরছিল।

ঢামেক পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বরত এসআই বাচ্চু মিয়া জানান, নিহত কিশোরের বাবা সন্ধ্যায় মেডিক্যালে এসে লাশ শনাক্ত করেছেন।

বাড্ডা থানার উপপরিদর্শক সোহরাব হোসেন জানান, আফতাবনগরের লেক থেকে সোমবার বিকেলে ওই কিশোরের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। এর পর ময়নাতদন্তের জন্য ওইদিন রাতেই মরদেহ ঢামেক মর্গে পাঠানো হয়।

তথ্য:

বিভাগ:

প্রকাশ: জানুয়ারী ২৫, ২০১৮

প্রতিবেদক: প্রবাসীর দিগন্ত

সর্বমোট পড়েছেন: 425 জন

মন্তব্য: 0 টি