লেবাননে অসুস্থ রাহিমার ধীরে ধীরে অসুস্থার অবনতি

নিজস্ব প্রতিবেদক : মার্চ ২২, ২০১৮

মো জুয়েল রানা: লেবাননে নারী রেমিডেন্স কারীগর রাহিমা আক্তার (৪০) ধীরে ধীরে অসুস্থাতার অবনতি দিকে যাচ্ছে। টাকা অভাবে চিকিৎসা চালানো তার সংকট হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই মান্যবর রাষ্ট্রদূত আবদূল মোতালেব সরকার ও বিভিন্ন সামাজিক এবং রাজনৈতিক সংগঠনের কাছে তার আকুল আবেদন। অতি দ্রুত তাকে দেশে প্রেরন করার জন্য।

গাজীপুর জেলার,জয়দেব পুর থানার, ভাওয়াল গাজীপুর গ্রামের মো রহিম মিয়া স্ত্রী রাহিমা আক্তার (৪০) গত বছর তিনেক আগে কটনভার দিয়ে তার কান পরিস্কার করার সময় ভুলবশত কানের ভিতরে কটন(তুলা) রয়ে যায়। তা বুঝতে পারিনি রাহিমা।

গত ৪মাস আগে তার কান ও মাথা ব্যাথা অনুভব হলে প্রাথমিক ভাবে স্হানীয় একটি ফার্মেসী থেকে ব্যাথার কথা বলে, ট্যাবলেট এনে খাইলে ব্যাথা চলে যায়। এভাবে প্রায় মাস খানেক এর মত চলে। পরে হঠাৎ প্রচন্ড আকারে ব্যাথা শুরু হলে, পাশের রুমে থাকা লোকজন তাকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিয়ে যায়। বিভিন্ন পরিক্ষা নিরিক্ষা করার পর ইনফেকশন ধরা পরে কানে। তার পর থেকে গত তিন মাস যাবত কর্মহীন অবস্থায় চিকিৎসা চালানো তার পক্ষে কষ্ট হয়ে পড়ে।

বাংলাদেশ থেকে জমি বিক্রি করে তার চিকিৎসা বাবত প্রায় ২০০০হাজার ডলার এনে, তার চিকিৎসা অব্যাহত রাখে। এখন আর তার পক্ষে চিকিৎসা চালানো অসম্বভ হয়ে পড়ে। তাই মান্যবর রাষ্ট্রদূত আবদূল মোতালেব সরকার সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের কাছে তার করুনময় মিনতি তাকে দ্রুত দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করে দেয়।

এদিকে, লেবানন প্রবাসী শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি আবদূল করিমের নেতৃত্বে চার সদস্য একটি দল গত ১০ই মার্চ বৈরুত আল বস্তা তার বাসায় গিয়ে খোজ খবর নেন এবং তাকে দূতাবাসে মাধ্যমে দ্রুত দেশে পাঠাবার আশ্বাস দেন। এসময় সংগঠনের সাধারন সম্পাদক ইমতিয়াজ আহমেদ রাজু রাহিমা আক্তারের বিমান টিকেট সংগঠনের পক্ষ থেকে দেওয়া হবে জানিয়েছেন।

রাহিমা আক্তারকে পরের দিন ১১ই মার্চ স্বশরিলে দূতাবাসে উপস্তিত হয়ে বিস্তারিত দূতাবাস জানানোর জন্য পরামর্শ দেন। সংগঠনের মহিলা সম্পাদিকা অজান্তা ইসলাম খাদিজা ও সিনিয়র সহ-সভাপতি মো আজাদ। এসময় ফোনে তার মেয়েকে ও সাত্বনা বাণী শোনান।

তথ্য:

বিভাগ:

প্রকাশ: মার্চ ২২, ২০১৮

প্রতিবেদক:

সর্বমোট পড়েছেন: 615 জন

মন্তব্য: 0 টি

বিজ্ঞাপন জন্য স্থান
(আপনার বিজ্ঞাপনের জন্য আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন)