স্পেনে বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে স্বাধীনতা দিবস পালিত

কবির আল মাহমুদ | নিজস্ব প্রতিবেদক : মার্চ ২৬, ২০১৮

স্পেনে বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে যথাযথ মর্যাদায় স্বাধীনতা দিবস পালিত হয়েছে। আজ (২৬ মার্চ) সোমবার স্থানীয় সময় সকাল ১১টায় দূতাবাস মিলনায়তনে এ উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে দূতাবাসে দিবসটির কার্যক্রম শুরু করেন স্পেনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হাসান মাহমুদ খন্দকার।

আলোচনা সভার শুরুতেই স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি, প্রধান মন্ত্রী, পররাষ্ট্র মন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণি পাঠ করে শোনান দূতাবাসের কমার্সিয়াল কাউন্সিলর মোহাম্মদ নাভিদ শফিউল্লাহ ও ফার্স্ট সেক্রেটারি ( লেবার উইং) মোহাম্মদ শরিফুল ইসলাম। দূতাবাস মিনিস্টার ও হেড অব চেন্সেরি এম হারুণ আল রাশিদের পরিচালনায় অনুষ্টিত আলোচনা সভার শুরুতেই মুক্তিযুদ্ধে নিহতদের স্মরণে ১মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন স্পেনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হাসান মাহমুদ খন্দকার। স্বাধীনতা দিবসের চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে বাংলাদেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখার জন্য সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের নিরলস প্রচেষ্টায় বাংলাদেশের দৃশ্যমান উন্নয়ন কর্মকা- এখন বিশ্বব্যাপী সমাদৃত। বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা অর্জন করেছে। দেশের মানুষের মাথাপিছু আয় অনেক বেড়েছে।

হাসান মাহমুদ খন্দকার ২৫ মার্চের গণহত্যা নিয়ে সমবেত প্রবাসীদের স্বস্ব অবস্থানে থেকে বিদেশীদের কাছে ১৯৭১ এর ২৫ মার্চ বাংলাদেশে ইতিহাসের নিকৃষ্ঠতম গণহত্যা হয়েছিল, তা আন্তর্জাতিকভাবে আরো ব্যাপক উপস্থাপনের গুরুত্ব আরোপ করে রাষ্ট্রদূত বলেন, মুক্তিযুদ্ধ কেন হয়েছিল তা বৈশ্বিকভাবে উপস্থাপনের জন্য আমাদের জাতীয় গণহত্যা দিবস সম্পর্কে বিদেশীদের কাছে পৌঁছাতে হবে। তারা সেই দেশের সরকারের সাথে সম্পৃক্ত থাকতে পারেন; কিংবা সেই দেশের সাধারণ নাগরিকও হতে পারেন।

রাষ্ট্রদূত হাসান মাহমুদ খন্দকার আরো বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতার চেতনাকে আগামীর প্রজন্মের কাছে সঠিকভাবে পৌঁছে দিতে হবে।রাষ্ট্রদূত মুক্তিযুদ্ধের চতেনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন বাস্তবায়নে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে একযোগে দেশ গড়ার কাজে এগিয়ে আসার জন্য প্রবাসীদের প্রতি আহবান জানান।

তিনি বাংলাদেশের উন্নয়নে প্রবাসীদের অবদানের কথা তুলে ধরেন এবং বাংলাদেশে বিনিয়োগ করার জন্যও তিনি প্রবাসীদের অনুরোধ জানান। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, মুক্তিযুদ্ধের সকল শহীদ এবং সকল মুক্তিযোদ্ধার প্রতিও তিনি গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন।

আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযুদ্ধা আব্দুর রহমান, আওয়ামীলীগ নেতা আক্তার হোসেন আতা, এসআরআইএস রবিন, দুলাল সাফা, জাকির হোসেন, বোরহান উদ্দিন, জহিরুল ইসলাম নয়ন, শেখ আব্দুর রহমান, সায়েম সরকার, এডভোকেট তারেক প্রমূখ।

আলোচনা সভা শেষে সমস্বরে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়। অনুষ্ঠানে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারবর্গ এবং ২৫ মার্চের কালরাত্রে গণহত্যার শিকার ও মহান স্বাধীনতাযুদ্ধে আত্মত্যাগকারী সকল শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয়। তাছাড়া ৭১’র গণহত্যার উপর নির্মিত ‘৭১’র গণহত্যা ও বধ্যভূমি’ শীর্ষক একটি বিশেষ ডকুমেন্টারি উপস্থাপন করা হয়।

তথ্য:

বিভাগ:

প্রকাশ: মার্চ ২৬, ২০১৮

সর্বমোট পড়েছেন: 605 জন

মন্তব্য: 0 টি

সংশ্লিষ্ট সংবাদ